চার্জার না দেওয়ায় জরিমানা গুনতে হল অ্যাপলকে

বিশ্বের বিলাসবহুল প্রযুক্তি পণ্যের বাজারে এখন রাজত্ব করছে অ্যাপল। অ্যাপলের আইফোন, কম্পিউটার, ল্যাপটপ কিংবা স্মার্টওয়াচ নিয়ে মানুষের আগ্রহের শেষ নেই। সবসময় অপেক্ষা, নতুন কী চমক নিয়ে আসছে অ্যাপল। মুনাফাও আসে অনেক। কিন্তু যুক্তরাষ্ট্রের টেক জায়ান্ট এবার তোপের মুখে পড়েছে।

চার্জার না দেওয়ায় জরিমানা গুনতে হল অ্যাপলকে | Apple has to pay a fine for not providing the charger
 

চার্জার না দেওয়ায় জরিমানা গুনতে হল অ্যাপলকে | Apple has to pay a fine for not providing the charger

আইফোন ১২ এর সাথে চার্জার থাকবেনা বলে অ্যাপেল এর বিরুদ্ধে অভিযোগ এনেছে ব্রাজিলের সাও পাওলোর ভোক্তা সংরক্ষণ অধিদপ্তর প্রোকন-এসপি। দেশটির ভোক্তা অধিকার সুরক্ষা সংস্থা প্রায় ১৯ লাখ ২০ হাজার ডলার জরিমানা করেছে সংস্থাটির মতে আইফোন সাথে চার্জার না থাকার বিষয়টি দেশটির ভোক্তা সুরক্ষা কোড ভঙ্গ হয়েছে যা শাস্তিযোগ্য অপরাধ। গত বছর ডিসেম্বরে এই বিষয়ে অবহিত করেন প্রোকন এসপিএ। 

অবস অ্যাপল চার্জার যুক্ত না করার বিষয়টিকে পরিবেশগত সহায়ক উয্যেগ হিসেবে জবাব দেয়। টেক জায়ান্ট এর দাবি কার্বন ডাই-অক্সাইড নির্গমন ও দুর্লভ খনিজ উত্তোলন হ্রাস করতে এমনটি করেছে অ্যাপল । অ্যাপলের এমন জবাবে প্রোকন এসপি সন্তুষ্ট হতে পারেননি যে কারণে ব্রাজিলের ভোক্তা অধিকার সুরক্ষা জরিমানা করেছে ।

অ্যাপেলের এই বিবৃতির ব্রাজিল প্রোকন এসপি দাবি করেছেন অ্যাপেল কে প্রমাণ করতে হবে যে আই ফোনের চার্জার না দিলে কার্বন নিরসন কমবে। কমবে খননকাজ আর মূল্যবান ধাতুর ব্যবহার। পাশাপাশি চার্জার আর এয়ারফোন না দিলেও অ্যাপল কেন আইফোন টুয়েলভ এর দাম কমায়নি, সে প্রশ্নেও  অ্যাপল কর্তৃপক্ষকে করেছে প্রোকন এসপি। অ্যাপল দাবি করেছে তাদের আইফোন টুয়েলভ পরিবেশ বন্ধন এই পরিবেশবান্ধব আইফোন চার্জার ছাড়া বিক্রি না করে সারা বিশ্বের সমালোচনার মুখে পড়েছে অ্যাপল।এ জরিমানা বা সমালোচনা কোনটাই অ্যাপলকে তোপের মুখে ফেলবে না বলে মত প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞদের কারণ ২০২১ সালের প্রথম প্রান্তিকেই অ্যাপলের আয় প্রায় ১১ হাজার ১৪০ কোটি ডলার। 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back To Top
x